নিশি-পত্র

নিশি-পত্র

এখনো কি জেগে আছো কেউ?
স্বপ্নে কি ডাকে নির্ঘুম ফেউ?
আছো কি কেউ মাতাল সমীরণে?
থাকো, চলো হারাই মধুবনে…
এখনো উত্তাল হৃদয় বসন্ত বাতাসে…
ভাসিয়ে হৃদয় চলো স্বপ্ন আকাশে,
ঘুমহীন স্বর্গের নৈঃশব্দ্য হুতাশে…
এখনো হয়নি সরব বাস্তবতা পাশে,
এখনো হয়নি মৃত জীবন কাহিনী…
এখনো হয়নি সারা ফালতু বাহিনী।
এখনো কি জেগে আছো কেউ?
হতে প্রাণময় কবিতার বউ?
তুলে নোঙ্গর অষ্টবসু নায়…
এখনো হৃদয় বনবাসে যায়।

এখনো কি জেগে আছো কেউ?…

বেঁচে আছি

বেঁচে আছি

আলতা ঠোঁটের সিক্ত ছোঁয়ায় বেঁচে আছি,
আলতো আদর বুকের মায়ায় বেঁচে আছি,
তোমার পিঠের ভেজা চুলের আল্পনাতে…
বাঁক খেয়ে যায় হৃদয় আকুল কল্পনাতে।
.
বিশ্বাসের ওই আয়না ঘরেই বেঁচে আছি,
শিউলি ভেজা সুবাস মেখেই বেঁচে আছি,
উপচে পড়া ছাইদানি আর কবিতাতে…
হৃদয়হরন, রক্তক্ষরন যাচ্ছে খাতে।
.
তোমার মনে ব্যাকুল হয়েই বেঁচে আছি,
তোমার গড়ন লাল লালিমায় বেঁচে আছি,
অর্ধ পাগল ঠোংগা কবির কাব্যখাতায়…
ভালবাসার উপাখ্যানের প্রেমের পাতায়…
……..বেঁচে আছি, বেঁচে আছি ……..

অনুকাব্য-১

অনুকাব্য-১

তপ্ত হতাশায় বুনি দুঃখ সুখ …
তবুও মেলেনা তারে মিলায় সে মুখ …
তবুও মিলাই খুজি দীর্ঘ জয়রথ …
যদিও হচ্ছে সদা অহরহ বধ …
কালের প্রান্তে যায় মিলায় রবি…
কেন যে বাঁধে আশা ফালতু ঠোংগা কবি

পদ্ম-বতী

পদ্ম-বতী

পদ্ম-পুকুর, পদ্ম-শরীর, তীক্ষ্ণ দেহের বাঁক…
নিঝুম দুপুর, নগ্ন আকাশ, রোদ, কামনায় খাক;
পুড়ছে ধরা…রূপের তাপের প্রখর সর্বনাশ…
তাম্র শরীর, উঁচু গ্রীবার…গরবিনী রাজহাঁস।
.
পদ্ম-পুকুর, লাল কাঁচুলি, ঠসক চোখের মায়া,
উদাস দুপুর, তমার নুপুর, উতল প্রানের জায়া;
আনন্দলোক, রিপুর কাহন…ব্যাকুল করা টানে…
ঢেউ এর হাসি জলের মাঝে…রক্তিমাভার পানে।
.
পদ্ম-পুকুর, বেলাজ বাতাস…দমকা শ্বাসের ছোঁয়া,
ক্লান্ত দুপুর, খর যৌবন… উষ্ণ মদন ধোঁয়া;
আকুল করা বসার ভাঁজের তৃষ্ণার্ত ডাকে…
ঠোংগা কবির ইচ্ছে ডানা মেলছে ঝাঁকে ঝাঁকে।