কথোপকথন ১১

পত্র-১১

— ফারহানা জিলানী এবং ঠোংগা কবি
.
তমাঃ-
রাত্রি আমার রাত্রিকথন…
…বুকের মাঝে তীব্র কাঁপন,
তোকে ছোবার ইচ্ছে যেমন…
…কেমন ক্ষরন কেমন দহন!
পিঠের উপর ভেজা চুলে,
…স্পর্শে তোকে পাবো বলে,
উষ্ণ ঠোঁটে তপ্ত শ্বাসে…
…আটকে রাখা দীর্ঘশ্বাসে…
বোতাম ছেড়ার ছলচাতুরী-
…খেলবি নাকি দুষ্টুমিতে?
মাতাল নেশায় আঁকড়ে তোকে…
…শরীর অবশ ঘাম শুকোতে,
শুভ্র শরীর শাড়ির ভাঁজে…
…জড়িয়ে তোকে একলা সাঁঝে…
হারিয়ে যাওয়ার সেই অতলে…
…আবির রাঙা এক বিকেলে…
.
তমঃ-
সিঁদুর রাঙা লজ্জা আঁকা…
…বুকের মাঝে তোমায় রাখা,
প্রণয় অধর কামুক বাঁকা…
…তোমার ভাঁজেই রাত্রি জাগা,
বুকের কাঁপন লুটোপুটি…
…প্রণয় মাখা ভীষণ সুখী,
নখের আঁচড় ঠোঁটের আদর…
…কতোটা প্রেমে ডুবতে দিবি?
আহবানের কাজল মাখা…
…তোমার উষ্ণ চোখের ভাষা…
অষ্টপ্রহর আমায় হরন …
…বোতাম ছেড়ার দুষ্টু চয়ন,
তীব্র প্রণয় রক্তিমাভা…
…আবির রাঙা এক বিকেলে…
রাত্রি ডোবে প্রেমের ছলে…
…তোমার অতল গভীর জলে…

কথোপকথন ১০

পত্র-১০

— ঠোংগা কবি এবং ফারহানা জিলানী
.
তমঃ-
দেবদারু চুলের গন্ধ বিলানো-
পাদপের আকুলতায়…
বুকের গভীরে হাজার তারা…
হৃদয়ের পথ দেখায়,
দুচোখে ধ্রুব ব্যাকুলতা শুকতারা…
রাঙা প্রণয়ের আকুল সমর্পণ…
উত্তাল নিশীথে ক্লান্ত দিশেহারা…
বিনিদ্র প্রেমের রুদ্র সমাপন;
জীবনের অপঠিত ডায়েরির পাতা…
আকন্ঠ তৃষ্ণায় পড়ে থাকে ফাঁকা,
আমার হৃদয় ঘাসে, জীবনের অবকাশে…
কোমলতা আক্ষেপে ‘তোমাকেই’ আঁকা।
.
তমাঃ-
গন্ধ বিলানো চুলের ছন্দে-
তোমায় ডেকেছি কাছে…
হৃদয়ের মাঝে ঝংকারে আর…
সাতরঙা ক্যানভাসে…
বিনিদ্র রাত ভোর পার হতে-
সমর্পণে কেটে যায়,
ব্যাকুল দুচোখে খুঁজে ফিরি সুখ…
তৃষিত কল্পনায়…
ডায়েরির পাতা অব্যক্ত নয়-
জীবনের পরিহাসে…
এঁকে নিও তুমি আমার প্রনয়…
আকন্ঠ ভালোবেসে!

কথোপকথন ৯

পত্র-৯

তমাঃ-
আজ তিন দিন তোমার কোনো দেখা নেই…
না সেল ফোনে, না ক্ষুদে বার্তায়…
না মনের গহীনে,
কোথায় হারিয়ে গেলে, মধ্য গগনে?
যেখানেই যাও, এমনতো নয়…
আমায় পড়বেনা মনে,
নদী যেভাবে বয়ে চলে সাগরের টানে,
যেভাবে মেঘের ডাকপিয়ন ঝড়ের চিঠি আনে…
যেভাবে সন্ধ্যাতারায় পথিক পথ চেনে…
আমি কি তোমায় ভালোবাসায়…
আগলে রাখিনি মনে?…
তবে হারালে কোন অভিমানে!
.
তমঃ-
কে বললে হারিয়েছি, তোমায় ফেলে পালিয়েছি?
নদীপথ যে ভাবে মেশে সাগরের পানে…
প্রণয়ের রাঙা আলোয় তোমাতেই মরেছি…
দু-চোখে খুঁজেছি জীবনের মানে,
অনুভবে তুমি, তোমার অভিমান মুঠো ফোনে,
তোমার অনুরাগ, প্রেমের পাশা খেলা…
খুলে তো দেখেছো, কি লেখা এই ডাকপিয়ন মনে…
উত্তাল গহীনে ভাসে প্রণয়ের ভেলা,
ফেরারি মন যেন গাঙচিল ডানা,
তোমাতেই উদাসীন স্মৃতির গগন…
ফেলে বর্ণীল অভিমান কখনোই যাবো না…
স্নিগ্ধতা আবেশে থাকুক তমাতে…তোমাতেই মগন।

কথোপকথন ৮

পত্র-৮

— ঠোংগা কবি এবং ফারহানা জিলানী
.
তমঃ-
তোমার আতপ ঝর্ণা জলে…
মনের দুপুর অচিনপুরে…
……ভালোবাসার স্ফটিক গলে-
……সুর লহরী হাসির ছলে,
তমার গানের অচিন সুরে…
লাজুক প্রনয় তনুর দোলে…
……আলোর খেলা বকুল তলে-
……নাচের হেলায় পায়ের মলে;
তোমার হাসি বাঁধনহারা…
ঝরায় প্লাবন প্রনয় ধারা,
……তবুও কেন মনের কোনে…
……বৃষ্টি ঝরে ব্যাথার খলে?!
.
তমাঃ-
ঝর্ণা জলে ভাসবে এসো…
স্ফটিক জলে আমায় ভুলে,
……আঁচল ভিজে হ্যাচকা টানে…
……ডুব দিওনা লজ্জা ভুলে,
আলোর খেলায় উঠবো মেতে,
তোমায় নিয়ে স্বর্গ সুখে,
……ভয় পেয়োনা মুখ লুকালে…
……তোমার বুকে একটু ঝুকে,
বাঁধনহারা প্রনয় ধারা…
কোথায় এমন ছুটবো বলো…
……তোমায় ঘিরেই পুর্নতা পায়-
……দীর্ঘশ্বাসের গল্পগুলো।